লাইসেন্স হারালো উবার, চাকরি হারাচ্ছেন ৪৫ হাজার চালক!

Posted by

এবার আরেক শহরে বন্ধ হওয়ার পথে অ্যাপ-নির্ভর ট্যাক্সি পরিবহনসেবা উবার। সোমবার (২৫ নভেম্বর) প্রতিষ্ঠানটির লাইসেন্স বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন (টিএফএল)। এর ফলে উবারের নিবন্ধিত অন্তত ৪৫ হাজার গাড়িচালকের কাজ হারানোর আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, নিরাপত্তা শঙ্কার কারণে উবারের লাইসেন্স বাতিল হয়েছিল আরও দুই বছর আগে। পরে তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৫ মাস সময় দিয়েছিল কর্তৃপক্ষ। এসময়ের মধ্যে বেশ কিছু নিয়মে পরিবর্তনও এনেছে প্রতিষ্ঠানটি।

একারণে পরে আরও দুই মাস সময় দেওয়া হয় উবারকে, যা গত রোববার (২৪ নভেম্বর) শেষ হয়েছে। কিন্তু, এতদিনেও তাদের পরিচালনা-নীতি ‘যথেষ্ট যোগ্য’ না হওয়ায় লাইসেন্স বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে টিএফএল।

ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডনের ‘লাইসেন্সিং, রেগুলেশন অ্যান্ড চার্জিং’ বিভাগের পরিচালক হেলেন চ্যাপম্যান বলেন, আমাদের কাছে নিরাপত্তার বিষয়টিই সবার আগে। সেখানে উবার যথেষ্ট উন্নতি করেছে। কিন্তু, তারা লাইসেন্স ও ইনস্যুরেন্সবিহীন চালকদের সঙ্গেও যাত্রীদের গাড়িতে উঠতে দিচ্ছে, এটা মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়।

গত কয়েক বছর ধরেই বিভিন্ন দেশের প্রচলিত ট্যাক্সিসেবা প্রতিষ্ঠান ও নীতিনির্ধারকদের বাধাসহ সমালোচনার মুখে রয়েছে মার্কিন প্রতিষ্ঠান উবার। বিশেষ অ্যাপ ব্যবহার করে উবার চালকরা তাদের গতিবিধি গোপন করছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে।

তবে সমালোচনা সত্ত্বেও দিন দিন বাড়ছে উবারের চালক ও গ্রাহকের সংখ্যা। লন্ডনেই তাদের নিবন্ধিত চালক রয়েছেন প্রায় ৪৫ হাজার। প্রতিষ্ঠানটির লাইসেন্স বাতিলের সিদ্ধান্ত পরিবর্তিত না হলে তাদের সবাই কাজ হারাতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

যদিও, চালকরা একই ধরনের অন্য অ্যাপভিত্তিক প্রতিষ্ঠানে নিবন্ধন করতে পারেন বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমগুলো। একারণে উবার তাদের লাইসেন্স অল্প সময়ের মধ্যে ফেরত না পেলে ভবিষ্যতে চালক সংকটে পড়বে বলেও মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ সংকট মোকাবিলায় ২১ দিন সময় রয়েছে উবারের হাতে। এসময়ের মধ্যে তারা টিএফএলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবে।