হংকংয়ের ক্যাসিনো ‘মাহাজং’ পাওয়া গেল দেশের দুই কারখানায়

Posted by

হংকং ও ম্যাকাওয়ের ক্যাসিনোর বিখ্যাত গ্যাম্বলিং মেশিন ‘মাহাজং’ মিলল পোলট্রি ফিড এবং ইজিবাইকের ব্যাটারির ফ্যাক্টরিতে। নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জের এ দুটি ফ্যাক্টরিতে অভিযানের পর কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের কর্মকর্তারা হতবাক। ফ্যাক্টরিতে উৎপাদিত পণ্যের সঙ্গে ক্যাসিনোর কোনো সামঞ্জস্য না থাকলেও আমদানি করা হয়েছে গ্যাম্বলিং মেশিন ‘মাহাজং’। কর্মকর্তারা বলছেন, শুল্ক ফাঁকি দিতেই জালিয়াতির মাধ্যমে ক্যাসিনো-সামগ্রী আনা হয়।

কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর সূত্র জানায়, কাস্টমস জানতে পারে হংকং ও ম্যাকাওয়ের ক্যাসিনোর বিখ্যাত গ্যাম্বলিং মেশিন ‘মাহাজং’ আমদানি করে পোলট্রি ফিড ইন্ডাস্ট্রি ও ইজিবাইক ব্যাটারি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানে রাখা হয়েছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে রবিবার বিকালে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মোহাম্মদ নেয়াজুর রহমান ও শামীমা আক্তারের নেতৃত্বে দুটি দল মুন্সীগঞ্জের নিউ হোপ অ্যাগ্রোটেক বাংলাদেশ লিমিটেড থেকে দুটি এবং নারায়ণগঞ্জের ডংজিং লংজারভিটি ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড থেকে একটি ক্যাসিনো খেলার ইলেকট্রিক ‘মাহাজং’ মেশিন উদ্ধার করেন।

কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক শামীমা আক্তার বলেন, ক্যাসিনো খেলার সামগ্রী ‘মাহাজং’ মেশিন প্রতিষ্ঠান দুটির উৎপাদিত পণ্যের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ না হলেও তারা কেন এমন জুয়া খেলার মেশিন আমদানি করেছে এ বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। আমদানিকৃত পণ্য চালানের (মাহাজং) বি/ই পর্যালোচনায় দেখা যায়, তারা অপেক্ষাকৃত কম মূল্য ঘোষণায় শুল্কায়ন সম্পন্ন করে পণ্য খালাস করেছেন। এ ক্ষেত্রে আমদানি পর্যায়ে শুল্ক ফাঁকি হয়েছে মর্মে প্রতীয়মান। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বাংলাদেশে ‘মাহাজং’ আমদানির বেশ কিছু পণ্যের চালান কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর কর্তৃক শনাক্ত করা হয়েছে। এরূপ আমদানির বিষয়ে সংশ্লিষ্ট আমদানিকারকদের শুনানিতে ডাকা হয়েছে। এ ছাড়া বিভিন্ন বাণিজ্যিক আমদানিকারক কর্তৃক ক্যাসিনো খেলার সামগ্রী তথা ‘মাহাজং’ আমদানির বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।