তখন আইজিপি এসেও সালাম দেয়

Posted by

order Lyrica from canada রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সকলকে দল-মত-নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, রোহিঙ্গা সমস্যাটা জাতীয় সমস্যা এবং একটি দেশের সমস্যা। এটি কোন একটি রাজনৈতিক দলের সমস্যা নয়। এটি সমাধানে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হলে চিরস্থায়ী সমস্যা সৃষ্টি হবে।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ডেমোক্রেটিক কাউন্সিল (বিডিসি) কর্তৃক আয়োজিত ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় সংকট নিরসনের উপায়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

বাবু গয়েশ্বর বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা অনেক দেশেই আছে। ৭১ সালে আমরাও শরণার্থী হিসেবে আরেক দেশে আশ্রয় নিয়েছিলাম। ১৬ ডিসেম্বরে পাকিস্তানের আত্মসমর্পণের পর আমরা নিজেরাই সে দেশ থেকে চলে এসেছি। আমাদেরকে কারো জোর করে পাঠাতে হয়নি। অথচ আজকে যে রোহিঙ্গারা এসেছে তাদের প্রত্যাবাসন করতে পারছে না। এটা সরকারের দুর্বল পররাষ্ট্রনীতির কারণে এমনটি হয়েছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, দেশে গণতন্ত্র নেই, আইনের শাসন নেই, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নেই এবং দুর্নীতিতে ভরে গেছে। দুর্নীতির কারণেই আজকে ক্ষমতায় যাওয়ার প্রবণতা বেশি এবং ক্ষমতায় থাকার প্রবণতা বেশি থাকার কারণ বিনা ভোটে একবার ক্ষমতায় গেলে কোটি কোটি টাকা কামানো সম্ভব। তখন আইজিপি এসেও সালাম দেয়। আর আমি যতো বড় লোকই হই না কেন যখন ক্ষমতায় নেই তখন কনস্টেবল এসেও মাথায় আঘাত দিবে। সুতরাং এই যে বৈষম্য নাগরিকতার ক্ষেত্রে এই বৈষম্যগুলোই আজকের অস্থিরতার শেষ সীমানায় পৌঁছে গেছে।

তিনি আরও বলেন, এখনতো গুজবের শেষ নেই; এই আসছেন, এই যাচ্ছেন, বোন হচ্ছেন না মেয়ে হচ্ছেন, কে হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী এসব গুজবের কোনও শেষ নেই। যাওয়া-আসার মধ্যে নীরবতা, আসার পরে প্রেসব্রিফিং করা, এখন একা একা যাওয়া, এই যে কত রকমের কথা ডালপালা চারিদিকে ছড়াচ্ছে এই ছড়ানোর মধ্য দিয়েই সবার মধ্যেই তাকাতাকি, যে কি জানি হচ্ছে। সবচেয়ে বেশি খারাপ অবস্থা নিজেদের মধ্যে তাকাতাকি এই বুঝি কিছু হচ্ছে এবং নিজেদের মধ্যেই অস্বস্তি আতঙ্ক বিরাজ করছে। কি জানি ‘আপার’ কি হইছে, কোন দিন কারে ক্ষমতা দিয়া জায়গা নাকি এইসব চলছে।

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, তথ্য গবেষণা বিষয়ক সহ-সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য সাবিরা নাজমুল প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.